আবেদন করুন নবান্ন স্কলারশিপে এবং পেয়ে যান এককালীন ১০ হাজার টাকা

রাজ্যজুড়ে সদ্য মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার রেজাল্ট প্রকাশিত হয়েছে। আর তাতে একদিকে যেমন ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে নতুন ক্লাসে কিংবা নতুন কলেজে ভর্তি হওয়ার আনন্দ রয়েছে ঠিক তেমনভাবেই রাজ্যের বহু সংখ্যক ছাত্র-ছাত্রী এবং অভিভাবক আগামী দিনে শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় খরচ নিয়ে যথেষ্ট চিন্তিত। আর ছাত্র-ছাত্রীদের পিতা, মাতা অথবা অভিভাবকদের এই চিন্তা দূর করতে পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য সরকারের তরফ থেকে ছাত্র-ছাত্রীদের আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী করে তোলার জন্য এবং পড়াশোনার ক্ষেত্রে ছাত্র-ছাত্রীদের আর্থিক বোঝা কমানোর জন্য এক বিশেষ স্কলারশিপ কার্যকরি করা হয়েছে। স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তহবিল থেকে এই স্কলারশিপের অনুদানের টাকা দেওয়া হয়ে থাকে। পশ্চিমবঙ্গের দুই ক্ষেত্রে এই স্কলারশিপটি দুই নামে পরিচিত। আজ্ঞে হ্যাঁ, দক্ষিণবঙ্গে এই স্কলারশিপটি নবান্ন স্কলারশিপ নামে এবং উত্তরবঙ্গে এই স্কলারশিপটি উত্তরকন্যা স্কলারশিপ নামে বিশেষ পরিচিতি পেয়েছে।

তবে ছাত্র-ছাত্রীদের সুবিধার খাতিরে জানিয়ে রাখি যে, নাম পরিবর্তন হলেও আবেদনের পদ্ধতি কিংবা আবশ্যিক যোগ্যতার কোনরকম পরিবর্তন আনা হয়নি। অর্থাৎ উত্তরবঙ্গ এবং দক্ষিণবঙ্গ উভয় ক্ষেত্রের ছাত্র-ছাত্রীরা একই যোগ্যতার পরিপ্রেক্ষিতে এই স্কলারশিপের আওতায় আবেদন জানাতে পারবেন। তবে নবান্ন স্কলারশিপের আওতায় আবেদন জানানোর ক্ষেত্রে এই স্কলারশিপের আবেদন প্রক্রিয়া, আবশ্যিক যোগ্যতা, আবেদনের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় নথি এই সমস্ত তথ্যগুলি সম্পর্কে সঠিকভাবে জানা প্রয়োজন নতুবা আবেদনের ত্রুটির কারণে স্কলারশিপের অনুদান পাওয়া সম্ভব হবে না।

কারা এই স্কলারশিপের আওতায় আবেদন জানাতে পারবেন:-

১. নবান্ন স্কলারশিপের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্য অনুসারে জানা গিয়েছে যে, একাদশ শ্রেণি থেকে শুরু করে স্নাতক স্তরে এবং স্নাতকোত্তর স্তরে পাঠরত ছাত্র-ছাত্রীরা এই স্কলারশিপের আওতায় আবেদন জানাতে পারবেন।
২. শিক্ষার্থীকে অবশ্যই পশ্চিমবঙ্গের স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে।
৩. আবেদনকারী শিক্ষার্থীর পরিবারের বাৎসরিক আয় ১,২০,০০০ টাকার কম হতে হবে।
৪. স্কলারশিপের আওতায় আবেদন জানানোর ক্ষেত্রে একাদশ, দ্বাদশ শ্রেণীতে পাঠরত এবং স্নাতক স্তরে পড়াশোনা করছেন এরূপ ছাত্র-ছাত্রীদের কেবলমাত্র ৫০ শতাংশ থেকে ৬০ শতাংশ নম্বর পেতে হবে। অন্যদিকে যে সমস্ত ছাত্র-ছাত্রীরা বর্তমানে স্নাতকোত্তর স্তরে পড়াশোনা করছেন তাদের এই স্কলারশিপের অধীনে অনুদান পাওয়ার ক্ষেত্রে ৫০ থেকে ৫৩ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।
৫. যেসকল ছাত্র-ছাত্রীরা পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তরফে কার্যকরী অন্য যেকোন স্কলারশিপের আওতায় অনুদান পেয়ে থাকেন তারা নবান্ন অথবা উত্তরকন্যা স্কলারশিপের আওতায় আবেদন জানাতে পারবেন না।

স্কলারশিপের অধীনে কত টাকার অনুদান দেওয়া হয়?

নবান্ন স্কলারশিপ অথবা উত্তরকন্যা স্কলারশিপের আওতাভুক্ত ছাত্র-ছাত্রীদের প্রত্যেক বছর ১০,০০০ টাকার অনুদান দেওয়া হয়ে থাকে বলেই জানা গিয়েছে নবান্ন স্কলারশিপের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্য অনুসারে। এই অনুদানের টাকা সরাসরি ছাত্র-ছাত্রীদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ট্রান্সফার করা হয়ে থাকে। ছাত্র-ছাত্রীর আর্থিক অবস্থা এবং মেধার উপর নির্ভর করে এই স্কলারশিপের আওতায় ছাত্র-ছাত্রীদের অনুদান প্রদান করা হয়ে থাকে। তবে এক্ষেত্রে প্রতিবন্ধী ছাত্র-ছাত্রীদের অগ্রাধিকার দেওয়া হয়।

আরও পড়ুন:- রাজ্য সরকারের প্রকল্প, শিশুর জন্মের পরই সবুজশ্রী প্রকল্পের আওতায় মিলবে উপহার স্বরুপ গাছ

আবেদন জানানোর প্রক্রিয়া:-

ছাত্র-ছাত্রীদের উদ্দেশ্যে জানিয়ে রাখি যে, নবান্ন স্কলারশিপ অথবা উত্তরকন্যা স্কলারশিপের আওতায় শুধুমাত্র অফলাইনের মাধ্যমে আবেদন জানানো সম্ভব। নবান্ন অথবা উত্তরকন্যা স্কলারশিপের আওতায় আবেদন জানানোর জন্য প্রথমেই আপনাকে স্কলারশিপের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট wbcmo.gov.in -এ যেতে হবে এবং আবেদনের ক্ষেত্রে প্রয়োজনের ফর্মটি ডাউনলোড করতে হবে। এরপর ফর্মটিকে প্রিন্ট করে নিয়ে সঠিকভাবে পূরণ করতে হবে। ফর্মের একেবারে প্রথমেই আবেদনকারীর নাম, পিতার নাম, জন্ম তারিখ, সাব কাস্ট -এর মত তথ্যগুলি সঠিকভাবে পূরণ করতে হবে। পরবর্তীতে আবেদনকারী স্থায়ী ঠিকানা, জেলা, পিন কোড, মোবাইল নম্বর, ইমেইল অ্যাড্রেস সঠিকভাবে লিখতে হবে।

তারপর আবেদনকারী শিক্ষার্থী শেষ কোন পরীক্ষা দিয়েছেন, কত সালে শেষ পরীক্ষা দিয়েছেন, কোন বোর্ড থেকে শেষ পরীক্ষাটি দিয়েছেন, কত শতাংশ নম্বর পেয়েছেন এবং গ্রেড উল্লেখ করতে হবে। পরবর্তীতে আবেদনকারী শিক্ষার্থীর বর্তমান কোর্সের সমস্ত তথ্য অর্থাৎ কোর্সের নাম, কোর্সের সময়সীমা, শিক্ষার্থী বর্তমানে কোন প্রতিষ্ঠানে পাঠরত, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ঠিকানা সহ অন্যান্য তথ্যগুলি নির্ভুলভাবে পূরণ করতে হবে। সবশেষে আবেদনকারী শিক্ষার্থীর ব্যাংক অ্যাকাউন্টের সমস্ত ডিটেইলস অর্থাৎ ব্যাংকের অ্যাকাউন্ট নম্বর, IFSC কোড, ব্রাঞ্চের নাম, ঠিকানা সঠিকভাবে পূরণ করে স্থান, তারিখ নির্ভুলভাবে উল্লেখ করে শিক্ষার্থীর স্বাক্ষর করলেই ফর্ম পূরণের প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন হবে।

শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে আরও জানিয়ে রাখি যে, শুধুমাত্র স্কলারশিপের আবেদনের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় ফর্মটি পূরণ করলেই হবে না। এর পাশাপাশি সেল্ফ ডিক্লিয়ারেশন ফর্ম পূরণ করতে হবে এবং MLA রেকমেন্ডেশন ফর্মটি পূরণ করতে হবে। মূল ফর্মের সঙ্গে এই দুটি ফর্ম এবং প্রয়োজনীয় নথি যুক্ত করে ইমেইল -এর মাধ্যমে পাঠাতে হবে অথবা মুখবন্ধ খামে পুরে নির্দিষ্ট অফিসের ড্রপ বক্সে জমা দিয়ে আসতে হবে। এক্ষেত্রে আবশ্যক ইমেল অ্যাড্রেসটি হল: wbcmrfedu2020@gmail.com
ইমেইলের মাধ্যমে আবেদন পত্র জমা দেওয়ার ক্ষেত্রে আবেদনকারীকে আবেদনপত্র সহ সমস্ত ডকুমেন্টগুলি নিখুঁতভাবে স্ক্যান করতে হবে এবং পরবর্তীতে তা ইমেইলের মাধ্যমে পাঠাতে হবে।

আবেদনপত্র জমা দেওয়ার ঠিকানা:-

নবান্ন স্কলারশিপের জন্য আবেদনপত্র জমা দেওয়ার ঠিকানা:-
The Assistant Secretary, Chief Minister’s Office, NABANNA, 325, Sarat Chatterjee Road, Howrah- 711102

উত্তরকন্যা স্কলারশিপের জন্য আবেদনপত্র জমা দেওয়ার ঠিকানা:-
Department of CMRF Scholarship, UTTARKANYA, New Satellite Township, Kamrangaguri, Fulbari, West Bengal- 734015

আবেদনের ক্ষেত্রে আবশ্যক ডকুমেন্টস:-

১. স্কলারশিপের ফর্ম।
২. শেষ পরীক্ষার মার্কশীট।
৩. বর্তমানে ছাত্র অথবা ছাত্রী যে কোর্সে অথবা শ্রেণীতে পড়াশোনা করছেন তাতে ভর্তির রশিদ।
৪. পৌরসভা/ BDO/ SM/ SDO/ গ্রুপ A অফিসারের তরফে জারি করা আবেদনকারী ছাত্র অথবা ছাত্রীর পরিবারের বাৎসরিক আয়ের সার্টিফিকেট।
৫. ছাত্র কিংবা ছাত্রীর ব্যাংকের পাস বইয়ের জেরক্স কপি।
৬. সেলফ ডিক্লারেশন ফর্ম।
৭. ছাত্র অথবা ছাত্রীর ফোন নম্বর, ইমেইল এড্রেস।
৮. আবেদনকারী শিক্ষার্থী যে এলাকায় বসবাস করছেন সেই এলাকার এমপি অথবা MLA দ্বারা জারি করা রেকমেন্ডেশন লেটার।

আবেদনের সময়সীমা:-

ছাত্র-ছাত্রীদের সুবিধার্থে জানিয়ে রাখি যে, নবান্ন স্কলারশিপ অথবা উত্তরকন্যা স্কলারশিপের আওতায় আবেদনের জন্য কোন নির্দিষ্ট সময়সীমা নেই। বছরে যেকোন সময় এই স্কলারশিপের আওতায় আবেদন করা সম্ভব। তবে নতুন শ্রেণীতে ভর্তি হওয়ার পরই স্কলারশিপের জন্য আবেদন জানানো শ্রেয়। তবে আপনি চাইলে আপনার সুবিধা অনুসারে বছরের যেকোন সময়ই এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন জানাতে পারবেন। নবান্ন স্কলারশিপ অথবা উত্তরকন্যা স্কলারশিপের আবেদন সংক্রান্ত যেকোনো রকম সমস্যার সমাধানের জন্য রাজ্য সরকারের তরফেক বিশেষ হেল্পলাইন নম্বরও কার্যকর করা হয়েছে। এই হেল্পলাইন নম্বরটি হল (033) 2253 5335। আবেদনের ক্ষেত্রে কোনরূপ সমস্যার সম্মুখীন হলে আপনিও এই হেল্পলাইন নম্বরে যোগাযোগ করতে পারেন।