আপনার কি এটিএম কার্ড আছে? থাকলেই একদম বিনামূল্যে পাবেন 5 লাখ টাকার সুবিধা!

ATM কার্ড অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ জিনিস হয়ে দাঁড়িয়েছে বর্তমান দৈনন্দিন জীবনে। সাধারণ মানুষের সময় বাঁচানোর পাশাপাশি এই কার্ড, নিরাপদ করে তুলেছে গ্রাহকদের অর্থকেও। তবে ATM কার্ডের একটি দারুণ সুবিধার কথা জানেন না অনেকেই। ATM কার্ড আসলে আর্থিক ভাবে পরিবারকে সুরক্ষা কভারেজও দেয়। অনেক গ্রাহকই শুনলে চমকে যাবেন, যে 5 লাখ টাকার বীমা বিনামূল্যে দেওয়া হয় সব ATM কার্ডেই। এই বীমা ক্লেইম করা যেতে পারে মৃত্যুর ক্ষেত্রে। চলুন জেনে নেওয়া যাক বিস্তারিত:

এটিএম কার্ড থাকলে কি কি সুবিধা পাবেন?

এই বীমা পেতে পারেন কারা কারা? অত্যন্ত দরকারি তা জানা। RBI- এর নিয়ম বলছে, যদি কমপক্ষে 45 দিন আগে থেকে কোনও ব্যক্তি ATM কার্ড ব্যবহার করেন, তবে তিনি যোগ্য হন বীমা পাওয়ার। বীমা পাওয়া যাবে কত পরিমাণে, ATM কার্ডের উপরে তা নির্ভর করবে। সাধারণত তিন ধরনের ATM কার্ড দেওয়া হয় ব্যাঙ্কের তরফে।

এরমধ্যে একটি হল ক্লাসিক, অপরটি প্ল্যাটিনাম ও সবশেষে যেটি রয়েছে তা হল সাধারণ কার্ড। সাধারণ মাস্টার কার্ডে গ্রাহকেরা 50 হাজার টাকা, ক্লাসিক এটিএম কার্ডে 1 লাখ টাকা, ভিসা কার্ডে 1.5 থেকে 2 লাখ টাকা এবং প্ল্যাটিনাম কার্ডে 5 লাখ টাকা বীমা পেতে পারেন। অন্যদিকে, RuPay কার্ডে সরকারের জন-ধন যোজনার আওতায় খোলা অ্যাকাউন্টে কোনও ব্যক্তি বীমা পান 1 থেকে 2 লাখ টাকার।

ইচ্ছেমত বাচ্চাদের স্কুলে অ্যাডমিশন নয়, বেঁধে দেওয়া হল নিয়ম। ভর্তির আগে জেনে নিন।

বলে রাখি,ATM কার্ড ব্যবহারকারী যদি কোনও দুর্ঘটনার কবলে পড়েন, সেক্ষেত্রে তিনি টাকা পেতে পারেন কার্ডের বিভাগ অনুসারে।পরিবার 1 থেকে 5 লাখ টাকা পর্যন্ত বীমা দাবি করতে পারে মৃত্যুর ঘটনার ক্ষেত্রে। একই সময় একটি হাত বা পায়ের হানি ঘটলে 50 হাজার টাকা এবং দু’পা বা দু’হাতের ক্ষেত্রে এই বিমার পরিমাণ 1 লাখ টাকা হতে পারে।

সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে, ধরা যাক ব্যাঙ্কগুলির এটিএম কার্ড ব্যবহার করার ৪৫ দিনের মধ্যেই মৃত্যু বা দুর্ঘটনা ঘটল গ্রাহকের। সে-ক্ষেত্রে তাঁর উপর নির্ভরশীল মানুষ এই বিমা পলিসির অধীনে ক্ষতিপূরণ ক্লেম করতে পারেন৷ আপনি যখন কোনও ব্যাঙ্কে আপনার সেভিংস অ্যাকাউন্ট খোলেন, ব্যাঙ্ক আপনাকে এটিএম কার্ড বা ডেবিট কার্ড দেয়।

মনে রাখবেন, ব্যাঙ্ক থেকে এই কার্ড ইস্যু করলেই আপনি অ্যাক্সিডেন্টাল ইন্স্যুরেন্স বা জীবন বিমা পাবেন। দেশের বৃহত্তম ব্যাঙ্ক এসবিআই (SBI)-এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইটের তথ্য অনুসারে, ডেবিট কার্ড ধারককে ব্যক্তিগত দুর্ঘটনা বিমা (মৃত্যু) নন-এয়ার বিমা দেওয়া হয়। তবে দুর্ঘটনা ঘটলেই যে গ্রাহক ব্যাঙ্ক থেকে অটোমেটিক ভাবে বীমার সুবিধা পাবেন, ব্যাপারটা এমন মোটেই নয়।

প্রত্যেক মোবাইলের জন্য দেওয়া হবে আলাদা আইডি নম্বর। লিংক না করলে ফোনে নেটওয়ার্ক থাকবে না।

বরং, এরজন্য আবেদন করতে হয় ব্যাঙ্কে গিয়ে। খেয়াল রাখতে হবে এই বীমা পাওয়া যায় দুর্ঘটনার ক্ষেত্রেই। এটিএম কার্ডধারী ব্যক্তির নমিনিকে এই জন্য যেতে হবে নির্দিষ্ট ব্যাঙ্কে। এরপর আবেদন করতে হবে সেখানে। এক্ষেত্রে আবেদনের সঙ্গে হাসপাতালে কাগজ, FIR হয়ে তাকলে তাঁর জেরক্স ইত্যাদিও দিতে হবে।এছাড়া ডেথ সার্টিফিকেটও দিতে হবে মৃত্যু হলে।নমিনি টাকা পাবেন এই ক্লেইম করার কিছুদিন পরে।

Leave a Comment