Higher Secondary Exam – দোটানায় উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীরা, পিছতে পারে ফর্ম ফিলাপের দিন!! লাগবে লেট ফাইন?

আগামী ১৬ই ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হবে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা (Higher Secondary Exam). হাতে মাত্র আর দুই মাস। জোর কদমে প্রস্তুতি চালাচ্ছে রাজ্যের উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থীরা। ইতিমধ্যে রাজ্যের বিভিন্ন স্কুলে উচ্চ মাধ্যমিক টেস্ট পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে, তবে টেস্টের ফলাফল প্রকাশ করতে এখনো বাকি রয়েছে। এরই মাঝে চলছে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার ফর্ম ফিলাপ। পরীক্ষার ফর্ম ফিলাপের শেষ তারিখ ১৬ই ডিসেম্বর করা হয়েছে।

Higher Secondary Exam admit card form fill up date.

এর পরই ছাত্র-ছাত্রী থেকে শুরু করে শিক্ষক-শিক্ষিকাদের একাংশ উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার ফর্ম ফিলাপের তারিখ আরো বাড়ানোর আর্জি জানিয়েছে। আসলে উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ ১৬ ডিসেম্বরের মধ্যে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার (Higher Secondary Exam) ফর্ম ফিলাপের শেষ তারিখ ঘোষণা করেছে। তবে এর ফলে সমস্যা পড়েছে রাজ্যের উচ্চমাধ্যমিক পড়ুয়া থেকে শুরু করে শিক্ষক-শিক্ষিকাদের একাংশ।

একদিকে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার টেস্ট অন্যদিকে মাধ্যমিক পরীক্ষার টেস্ট, তারই সাথে তৃতীয় পর্যায়ক্রমিক মূল্যায়নও চলছিল স্কুলগুলিতে। আর এট কাজ এক সঙ্গে থাকায়, সমস্ত পরীক্ষার খাতা দেখে রেজাল্ট প্রকাশ করা বেশ চাপের। এদিকে ১৬ ডিসেম্বর Higher Secondary Exam এর ফর্ম ফিলাপের ডেডলাইন, ফলত টেস্ট পরীক্ষার ফলাফল না প্রকাশ পেলে কীভাবে ছাত্র-ছাত্রীরা পরীক্ষার ফর্ম ফিলাম করবে? তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে শিক্ষক-শিক্ষিকাদের একাংশ।

স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপের টাকা পাঠানোর কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে। আপনি পেলেন?

অন্যদিকে ফর্ম ফিলাপ করতে গিয়ে সমস্যার মুখে পড়ছে অনেক পড়ুয়া। পরীক্ষার জন্য অনলাইনে ফর্ম সাবমিট করা বাধ্যতামূলক। তবে সার্ভার ডাউনের কারণে পড়ুয়ারা ফর্ম ফিলাপ করতে পারছে না। তাই আগামী ১৬ ডিসেম্বরের মধ্যে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার ফর্ম (Higher Secondary Exam) ফিলাপ করা খুব কঠিন। এ বিষয়ে দক্ষিণ দমদমের এক স্কুলের সহকারী শিক্ষক সইদুল ইসলাম জানিয়েছেন, ‘‘ফর্ম পূরণের শেষ তারিখ না পিছোলে লেট ফাইন দিতে হবে পরীক্ষার্থীদের।

এ বার ফর্ম অনলাইনে পূরণ করতে বলা হয়েছে। সার্ভার ডাউন থাকলে আটকে যাচ্ছেন অনেকে। তাই আমরা ফর্ম পূরণের শেষ দিন পিছোনোর আর্জি জানাচ্ছি।’’ উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের সভাপতি চিরঞ্জীব ভট্টাচার্য হিন্দুস্থান টাইমসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, ‘অ্যাডমিট কার্ড পেতে এই ফর্ম ভরা জরুরি। ১৬ ডিসেম্বর তার শেষ তারিখ ছিল।

আর্থিকভাবে দুর্বল পড়ুয়াদের জন্য দারুন ঘোষণা। উপকার হবে কোটি কোটি পড়ুয়ার।

কিন্তু সার্ভারে নানা সমস্যা হচ্ছে। এই ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট টিমের সঙ্গে মিটিং হবে খুব শিগগিরই। তার পর ফর্ম ভরার শেষ তারিখ পিছনো হবে। সেটা চূড়ান্ত হয়ে গিয়েছে।’ সংসদের সভাপতি আরো বলেন যে, তবে কতদিন তারিখ বাড়ানো হবে, তা মিটিং শেষেই চূড়ান্ত হবে এবং তারপর অফিসিয়াল ভাবে জানিয়ে দেওয়া হবে।

Leave a Comment