Smart Panchayat 2.0: পঞ্চায়েত ব্যবস্থার সমস্ত পরিষেবা এখন হাতের মুঠোয়। হোয়াটসঅ্যাপেই মিলবে একগুচ্ছ সুবিধা, সেভ করে রাখুন নম্বরটা

পশ্চিমবঙ্গের পঞ্চায়েত ব্যবস্থায় টেকনোলজির জয়জয়কার। সাধারণ মানুষের জীবনযাত্রাকে আরও একটু সহজতর করতে, সরল ও সাবলীল করতে রাজ্য সরকারের গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ। স্মার্ট পঞ্চায়েত ২.০ (Smart Panchayat 2.0)-তে যুক্ত হলো হোয়াটসঅ্যাপ‌ চ্যাটবট। এবার ঘরে বসেই খুব সহজ পদ্ধতিতে হাতের নাগালে চলে আসলো সমস্ত পঞ্চায়েত পরিষেবা। গ্রামের মানুষকে আর ছোটাছুটি করতে হবে না।

স্মার্ট পঞ্চায়েত (Smart Panchayat 2.0) ব্যবস্থায় এমন সব সুবিধা মিলবে যা সাধারণ মানুষ থেকে গ্রাম পঞ্চায়েত কর্মী সবাই উপকৃত হবেন। স্মার্ট পঞ্চায়েত ২.০ হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটবটে (Smar Panchayat 2.0) কোন কোন সুবিধা মিলবে? কিভাবে জানানো যাবে আবেদন? কত সহজ হবে পরিষেবা পাওয়া? রাজ্য সরকারের স্মার্ট পঞ্চায়েত ২.০ (Smart Panchayat 2.0) হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটবট সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য রইল আজকের এই প্রতিবেদনে।

West Bengal Smart Panchayat 2.0

চলতি মাসে গত শুক্রবার ধনধান্য অডিটোরিয়ামে একটি বিশেষ বৈঠকের আয়োজন করে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। সেই বৈঠকে স্মার্ট পঞ্চায়েত (Smart Panchayat) নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গের গ্রামাঞ্চলে বসবাসকারী মানুষজন অনলাইনে হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে অত্যন্ত সহজ পদ্ধতিতে একাধিক সুবিধা লাভ করবেন।

বিগত কয়েক বছরে রাজ্য সরকার পঞ্চায়েত ব্যবস্থার‌ নানান ক্ষেত্রে একাধিক অনলাইন পরিষেবা চালু করেছে। প্রত্যেকটি পরিষেবার হাত ধরেই সাধারণ মানুষ উপকৃত হয়েছেন। অনেক ছোটছুটি কমেছে বাড়ি বসেই সেরে নেওয়া যাচ্ছে বহু জরুরি কাজ। আর এবার পশ্চিমবঙ্গ সরকারের স্মার্ট পঞ্চায়েত ২.০ (Smar Panchayat 2.0) আরো বড় পদক্ষেপ বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

ইন্টারনেটের আশীর্বাদে, টেকনোলজির উন্নয়নকে সম্বল করে পশ্চিমবঙ্গের পঞ্চায়েতকে ‘স্মার্ট পঞ্চায়েত’ রূপে গড়ার জন্য রাজ্য সরকার পশ্চিমবঙ্গ পঞ্চায়েত ও গ্রামোন্নয়ন দফতর যে অনলাইন পরিষেবা চালু করেছে, তারই নাম স্মার্ট পঞ্চায়েত 2.0 (Smart Panchayat 2.0)। আর এটি একটি বিশেষ রকমের হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটবট। পশ্চিমবঙ্গের গ্রামাঞ্চলে বসবাসকারী দুঃস্থ, দরিদ্র মানুষ জটিল অফিসিয়াল কাজ অনেক সহজ ভাবে করতে পারবেন। সরকার থাকবে তাঁদের সাহায্যার্থে। স্মার্ট পঞ্চায়েত 2.0 তাঁদের সবার কাছে আশীর্বাদের মতো।

WB Smart Panchayat 2.0 Benifits

বর্তমানে পঞ্চায়েত ব্যবস্থায় বিভিন্ন পরিষেবা চালু হয়েছে। অনেক পরিষেবার সুবিধা পেতে হলে তার জন্য অফিসে ছোটা বাধ্যতামূলক ছিল। তাছাড়া এই সকল পরিষেবা সংক্রান্ত খবরগুলি সব সময় সঠিকভাবে পাওয়া যেত না। তাই গ্রামাঞ্চলের মানুষ অনেক সুবিধা থেকেই বঞ্চিত হতেন। তাছাড়া রাজ্য পঞ্চায়েতে কর্মরতরা অনেক আপডেট মিস করে যেতেন। তাই সবদিক বিবেচনা করেই রাজ্য সরকার এই ব্যবস্থা চালু করল। এখন সবার হাতে হাতে স্মার্টফোন।

আর এই স্মার্টফোনে অপরিহার্য অ্যাপ হিসেবে স্থায়ী অবস্থান হোয়াটসঅ্যাপের। ‌তাই রাজ্য সরকার গ্রামবাসীর জন্য সহজবোধ্য ও বেশি ব্যবহার হওয়া অ্যাপ্লিকেশন হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমেই তাঁদের হাতে পরিষেবা তুলে দেওয়ার জন্য স্মার্ট পঞ্চায়েত ব্যবস্থাই হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটবট যুক্ত করল। ইতোমধ্যে একটি নম্বর দেওয়া হয়েছে। সেই নম্বরে যোগাযোগ করলেই প্রয়োজনীয় সুবিধা আপডেট সবই মিলবে। পরিষেবা পাওয়া আরো সহজ হলো।এখন কথা হচ্ছে, WhatsApp চ্যাটবটের কি কি সুবিধা পাবেন? সে বিষয়ে জানা যাক।

  • রাজ্যের গ্রামাঞ্চলের মানুষ অত্যন্ত সহজ পদ্ধতিতে কোথাও বাড়ি তৈরির অনুমোদনপত্র ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।
  • খুব সহজেই কোথাও যাওয়ার আগে গেস্ট হাউস বুক করে নেওয়া যাবে। ‌
  • পঞ্চায়েতে বসবাসকারীরা ট্রেড নো অবজেকশন সার্টিফিকেট বা ট্রেড NOC ডাউনলোড করতে পারবেন।
  • পঞ্চায়েতের কর্মীরা এই চ্যাটবট থেকে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মেসেজ পেতে পারবেন, যেমন পে স্লিপ, বার্ষিক বেতন, সংক্রান্ত তথ্য পাওয়া যাবে।
  • এছাড়া, ‌পঞ্চায়েত টুরিজম পোর্টালের আওতায় বুকিং বাতিল সংক্রান্ত মেসেজ করা, ও অভিযোগ জানানোরও সুযোগও দেওয়া হবে। (যদিও এটি নিয়ে কাজ চলছে, খুব শীঘ্রই সাধারণ মানুষ পরিষেবা পাবেন)
  • এছাড়াও আরও একটি বিষয় কাজ চলছে যার সুবিধা খুব শীঘ্রই পাওয়া যাবে তা হলো- সুবিধা ও কমপ্লেন অ্যাকশন নেওয়া হয়েছে, এমন রিপোর্ট দেখার সুবিধা।

Smart Panchayat 2.0 WhatsApp No

ইতোমধ্যে রাজ্য সরকারের তরফে একটি নম্বর দেওয়া হয়েছে। যে নম্বরে যোগাযোগ করলে উপরোক্ত সুবিধাগুলি পাওয়া যাবে। এই ফোন নম্বর ব্যবহার করে সরাসরি কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারবেন সাধারণ মানুষ। এই প্রতিবেদনের সঙ্গে নম্বরটি দেওয়া হল। আপনারা নম্বরটি অবশ্যই নোট করে রাখবেন। পশ্চিমবঙ্গ সরকারের পঞ্চায়েত ও গ্রামোন্নয়ন দফতরের তরফে শেয়ার করা নম্বরটি: 6291265854। এই নম্বরে যোগাযোগ করলেই একগুচ্ছ সুবিধা চলে আসবে আপনার হাতের মুঠোয়। তাহলে আর চিন্তা কি? বাড়িতে বসেই হোয়াটসঅ্যাপে যোগাযোগ করে নানাবিধ সুবিধাগুলি গ্রহণ করে নিন।