SVMCM Scholarship – শুরু হল স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপের আবেদন প্রক্রিয়া! দেখেনিন সম্পূর্ণ আবেদন পদ্ধতি।

সুখবর রাজ্যের সমস্ত পড়ুয়াদের জন্য! SVMCM Scholarship এ আবেদন প্রক্রিয়া অবশেষে শুরু হল। স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপের আবেদন প্রক্রিয়া স্কুল ছাত্র ছাত্রীদের জন্য অনেক আগেই শুরু হয়ে গিয়েছিল কিন্তু এবার ইঞ্জিনিয়ারিং, পলিটেকনিক,কলেজের ছাত্রছাত্রী এবং মেডিকেল পড়ুয়াদের জন্য শুরু হলো স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপের আবেদন প্রক্রিয়া। এবার বড়সড়ো বদল ঘটেছে SVMCM Scholarship এ আবেদন প্রক্রিয়ায়। আবেদনের নতুন পদ্ধতি সহ সম্পূর্ণ আবেদন পদ্ধতি এবং কি কি নথিপত্র প্রয়োজন?

SVMCM Scholarship apply online.

সম্পূর্ণ প্রতিবেদনটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন বিস্তারিত জানার জন্য। উচ্চ মাধ্যমিক পাস করে যেসকল পড়ুয়া ৬০% নম্বরসহ কলেজে স্নাতক কোর্সে প্রথম বর্ষে ভর্তি হয়েছে স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপে সেই সকল পড়ুয়া সবাই আবেদন করতে পারবে। এছাড়াও উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করে পলিটেকনিক, ইঞ্জিনিয়ারিং এবং মেডিকেল কোর্সে যেসকল পড়ুয়া ভর্তি হয়েছে সকলের জন্য শুরু হয়ে গিয়েছে স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপের আবেদন প্রক্রিয়া।

এরই সঙ্গে রেনুয়াল প্রক্রিয়াও শুরু হয়ে গিয়েছে SVMCM Scholarship এ। তাই পূর্ববর্তী ক্লাসে যেসকল পড়ুয়া, ৬০% নম্বর নিয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে তারা সকলে আবেদন করতে পারবে স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপে। এবার তাহলে জেনে নেওয়া যাক কিভাবে আবেদন করতে হবে এবং কী কী নথিপত্র দরকার!

1. সর্বশেষ যোগ্যতা পরীক্ষার Admit Card
2. যোগ্যতা পরীক্ষার মার্কশিট (উভয় পক্ষ)
3.ব্যাংক পাস বইয়ের প্রথম পৃষ্ঠা
4.Income Certificate
5.মাধ্যমিক পরীক্ষার Admit Card অনলাইনে ভর্তির প্রাপ্তি
6.Domicile Certificate(রেশন কার্ড / ভোটার আইডি / আধার কার্ড ইত্যাদি)।

কীভাবে আবেদন করবেন অনলাইনে:
1.প্রথমে আপনাকে অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে যেতে হবে।
2.তারপরে ‘ Registration‘ এ ক্লিক করুন।
3.এরপর ‘Apply for Fresh Application’ বোতামে ক্লিক করুন।

4.আপনাকে নিজের Name, Email, Phone Number, Date of Birth, ইত্যাদি সরবরাহ করে এই বৃত্তি অ্যাপ্লিকেশন পোর্টালে নিজেকে Registration নিবন্ধন করতে হবে।এই সময় আবেদনকারীকে একটি পাসওয়ার্ড তৈরি করতে হবে, যেটা পরবর্তীকালে লগ ইন করার সময় কাজে লাগবে।
5.সফল registration পরে, আবেদনকারী একটি ‘Application ID পাবেন। যার সাহায্যে তিনি অনলাইনে লগইন করতে পারবেন। এই অ্যাপ্লিকেশন আইডি অবশ্যই পরবর্তী ব্যবহারের জন্য লিখতে হবে।

কত পরিমাণ খাদ্য সামগ্রী মিলবে কোন কার্ডে! দেখে নিন বিনামূল্যের রেশনের নভেম্বরের পুরো তালিকা।

6.এরপর আবেদনকারীকে Application ID এবং Password দিয়ে লগ ইন করতে হবে এবং আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে ড্যাশবোর্ডে ‘Edit Profile / Application’ বিকল্পে ক্লিক করতে হবে।
7.এখন অনলাইনে আবেদন ফরম সঠিকভাবে সব তথ্য দিয়ে পূরণ করতে হবে এবং আবেদনকারীর স্ক্যান করা ছবি ও স্বাক্ষর ওয়েবসাইটে আপলোড করতে হবে। তারপর‘Save & Next’বাটনে ক্লিক করে পরবর্তী অংশে যান।

8.এরপর আবেদনকারীকে বেশ কিছু ডকুমেন্ট স্ক্যান করে আপলোড করতে হবে।
9.এখন আবেদনকারীর দেওয়া সমস্ত তথ্য অনলাইনে সেভ হয়ে গেছে। এই সমস্ত তথ্য আর একবার ভালো করে দেখে নিয়ে ‘Finalize Application‘ অপশনে ক্লিক করতে হবে।বলে রাখি, আবেদনকারী এই অপশনে ক্লিক করার পর edit করতে পারবে না আর কোনো তথ্য।

Leave a Comment