West Bengal leave Rules – 2024 এ শিথিল হল মাধ্যমিক পরিক্ষায় ছুটির নিয়ম, দারুন খুশি শিক্ষক- শিক্ষিকা।

প্রত্যেক স্কুল শিক্ষিক-শিক্ষিকাদের জন্য এবার দারুন সুখবর আনলো পর্ষদ। এবার থেকে মাধ্যমিক সহ যে কোনো বোর্ড (West Bengal leave Rules) পরীক্ষার সময় ছুটি পাবেন স্কুল শিক্ষক বা শিক্ষিকারা। এতদিন সন্তানের পরীক্ষার সময় মা যদি কোনো সরকারি স্কুলের শিক্ষিকা হন, তবে নিয়ম অনুযায়ী ছুটি পাওয়া যেত না। এবার এই ছুটির নিয়ম করা হলো শিথিল। নতুন নিয়ম অনুযায়ী, ছুটির নিয়মে কী পরিবর্তন করা হলো? আসুন জেনে নেওয়া যাক।

West Bengal leave Rules

এতদিন পর্যন্ত মাধ্যমিক সহ বোর্ডের যে কোনো পরীক্ষার সময় ছুটি পেতেন না স্কুল শিক্ষক বা শিক্ষিকারা। শুধু মাত্র সন্তানের শরীর খারাপ হলেও আবেদনের ভিত্তিতে ছুটি দেওয়া হতো শিক্ষক শিক্ষিকাদের। মাধ্যমিক পরীক্ষার সময় সর্বদা এমনটাই নিয়ম এনেছে পর্ষদ। তবে সে ক্ষেত্রে অনেক সময় সমস্যায় পড়তেন শিক্ষক থেকে শুরু করে শিক্ষিকারা। (West Bengal leave Rules)

কারণ অনেক শিক্ষক শিক্ষিকার সন্তান যারা বোর্ডের পরীক্ষায় বসে, তাদেরকে পরীক্ষা কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া বা অনন্যা বিষয়গুলি করতে পারতো না শিক্ষিকা মা বা শিক্ষিক বাবা। এর ফলে বেশ সমস্যায় পড়তে হতো। এবার ২০২৪-র মাধ্যমিকে এই নিয়মে শিথিল করা হলো। মাধ্যমিক শিক্ষা পর্ষদ মাধ্যমিক পরীক্ষার সময় ছুটির নিয়ম নিয়ে নয়া বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে। (West Bengal leave Rules)

মাধ্যমিক পরীক্ষা চলাকালীন শিক্ষক-শিক্ষিকা এবং শিক্ষাকর্মীদের ছুটির বিষয়ে এ বিজ্ঞপ্তিতে বিস্তারিত ভাবে বলা হয়েছে। এই বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে, মাধ্যমিক পরীক্ষার সময় মাধ্যমিক পরীক্ষা কেন্দ্রগুলির শিক্ষিক-শিক্ষিকা ও শিক্ষকর্মী ‘চাইল্ড কেয়ার লিভ’ ও ‘ পিতৃত্বকালীন ছুটি’ নিতে পারবেন। ছুটি নেওয়ার জন্য স্কুলের কাছে পরীক্ষা শুরুর তিন সপ্তাহ আগে একটি অঙ্গীকার পত্র জমা করতে হবে।

স্কুল শিক্ষক শিক্ষিকাদের জন্য বড় বদল, পর্ষদ তরফে জারী নতুন নিয়ম। আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে মানতে হবে।

ডিসেম্বরের শুরুতে মাধ্যমিক পরীক্ষার সময় শিক্ষক শিক্ষিকাদের ছুটি নিয়ে একটি সিদ্ধান্ত নিয়েছিল নবান্ন। যে সিন্ধান্তে ঠিক হয় সন্তান বোর্ড পরীক্ষায় বসলে ‘চাইল্ড কেয়ার লিভ’-এ ছুটি পাবেন শিক্ষিকারা। তবে শিক্ষকরা ছুটি পাবেন না বলে জানানো হয়েছিল। এরপরই শুরু হয়েছিল বিতর্ক। শুধু শিক্ষিকারা ছুটি পাবেন, শিক্ষকরা ছুটি পাবেন না কেন? এ নিয়ে প্রশ্ন উঠেছিল।

সে সময় বোর্ডের যুক্তি ছিল, স্বামী ও স্ত্রী একসঙ্গে শিক্ষকতা করলে, দুজনেই যদি ছুটি নেয় তাহলে পরীক্ষা চালানো কঠিন হয়ে দাঁড়াবে। তবে পর্ষদের চূড়ান্ত বিজ্ঞপ্তিতে শিক্ষকরাও ছুটি পাবেন। সে ক্ষেত্রে শিক্ষক ‘পিতৃত্বকালীন ছুটি’ নিতে পারবেন। তবে শিক্ষক বা শিক্ষিকা উভয়ের ক্ষেত্রেই সন্তান যদি বোর্ড পরীক্ষায় বসে তবে যথাযত নথি প্রদান করে ছুটির আবেদন করতে হবে।

জানুয়ারী থেকে পশ্চিমবঙ্গের স্কুলে ভর্তির নতুন নিয়ম। শিক্ষা দপ্তরের বিজ্ঞপ্তি।

অন্যদিকে স্বামী এবং স্ত্রীর দুজনেই যদি শিক্ষকতা করেন, তবে দুজনের একজনই ছুটি (West Bengal leave Rules) পাবেন। এ বিষয়ে শিক্ষক নেতা অনিমেষ হালদার জানিয়েছেন, “দীর্ঘদিন ধরে শিক্ষা দপ্তর এ ব্যাপারে মৌখিক আশ্বাস দিলেও বিজ্ঞপ্তি জারি করছিল না। এখন শিক্ষক-শিক্ষিকা বা শিক্ষা কর্মীদের তাদের সন্তানের জন্য ছুটি পেতে আশা করি আর কোন অসুবিধা থাকবে না।”

Leave a Comment