মাধ্যমিক পরীক্ষা নিয়ে বড় সিদ্ধান্ত, বদলে যাচ্ছে বই! পড়ুয়াদের কোন বই পড়তে হবে?

মাধ্যমিক পরীক্ষা বছর ঘুরলেই। মাধ্যমিক পরীক্ষায় (Madhyamik Exam) যাতে পড়ুয়াদের সমস্যা না হয় মধ্যশিক্ষা পর্ষদ তার জন্য পদক্ষেপ গ্রহণ করল। এবার নয়া পাঠ্যবই নিয়ে আসা হচ্ছে। মাধ্যমিক পরীক্ষায় সিলেবাসের বাইরে থেকে প্রশ্ন রুখতে এবং বিতর্কিত প্রশ্ন আটকাতে তৈরি করা হবে নয়া পাঠ্যবই। মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীরা উক্ত সমস্যার মোকাবিলা করতে পারবে সেই পাঠ্যবই পড়ে।মধ্যশিক্ষা পর্ষদ সূত্রে খবর, ২০২৪ সালেই নবম–দশমের পড়ুয়ারা সেই নতুন বইগুলি হাতে পাবে। এমন পাঁচটি বই দেওয়া হবে। আর পড়ুয়ারা মাধ্যমিক পরীক্ষা দেবে ২০২৫ সালে সেগুলি পড়ে। তবে সিলেবাসে কোনও পরিবর্তন হবে না।

মাধ্যমিক পরীক্ষার সিলেবাস দেখুন

এমন বই কেন আনা হচ্ছে?‌ অনেক সময় দেখা যায়, সিলেবাসের বাইরে থেকে প্রশ্ন আসে মাধ্যমিক পরীক্ষায়। আবার এসে থাকে বিতর্কিত প্রশ্নও। ২০২৩ সালের মাধ্যমিক পরীক্ষায় (Madhyamik Exam) পাক–অধিকৃত কাশ্মীরের পরিবর্তে ‘আজাদ কাশ্মীর’ লেখা ম্যাপ পয়েন্টিং এসেছিল। তখন তুমুল বিতর্ক তৈরি হয়। এমনকী বিজ্ঞান এবং গণিতেও সিলেবাসের বাইরে থেকে প্রশ্ন আসার অভিযোগ উঠেছে। পরে খতিয়ে দেখে বোঝা যায়, কোনও বেসরকারি প্রকাশনা সংস্থার ছাপা বইতে উত্তরের উল্লেখ রয়েছে।

এসব থেকে শিক্ষা নিয়ে পাঁচটি বিষয়ে বেসরকারি প্রকাশনা সংস্থার বইয়ের উপর রিভিউ চলছে। সেখানে বাদ দেওয়া হচ্ছে যাবতীয় বিতর্কিত এবং সিলেবাস বহির্ভূত বিষয়। আর কী কী জানা যাচ্ছে?‌ এই যে পাঁচটি বই সেগুলি নবম–দশম শ্রেণির পড়ুয়াদের দেওয়া হবে। এগুলি বেসরকারি প্রকাশনা সংস্থার বই। পরীক্ষার্থীদের যাতে কাজে লাগে তাই এমন উদ্যোগ নিয়েছে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। শুধু তাই নয়, রেজাল্ট যাতে ভাল হয় তার জন্য এই বই খুব উপযোগী।

রাজ্য শিক্ষা দপ্তরের তরফে নতুন ছুটির ঘোষণা! স্কুল খোলার পর পরই আবার বন্ধ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।

এই বইগুলি হল— বাংলা ব্যাকরণ, ভূগোল, ইতিহাস, জীবনবিজ্ঞান এবং ভৌতবিজ্ঞান। ২০১৭ সালের পর থেকে আর এই বইগুলির রিভিউ হয়নি। ফলে সেগুলি পুরনো হয়ে পড়েছে। মধ্যশিক্ষা পর্ষদ সূত্রে খবর, ২৪৪টি বই রিভিউয়ের জন্য এসেছে। ৫০টি প্রকাশনা সংস্থা তাদের বই পাঠিয়েছে। বিশেষজ্ঞরা সেগুলি রিভিউ করছেন। এই প্রসঙ্গে পর্ষদ সভাপতি ঠিক কী বলছেন?‌ এই ঘটনাটি এখন পড়ুয়ারাও জানতে পেরেছে। তাদের কৌতূহলও বেড়েছে বইগুলি নিয়ে।

আর বিষয়টি নিয়ে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের সভাপতি রামানুজ গঙ্গোপাধ্যায় বলেন, ‘প্রকাশনা সংস্থাগুলিকে বই রিভিউ করিয়ে নতুন টিবি নম্বর নেওয়ার কথা আগেই বলা হয়েছিল। সেই কথা মতো বই জমা পড়েছে। বিশেষজ্ঞদের বলা হয়েছে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের নির্দেশ মতো সিলেবাস অনুযায়ী বইগুলিকে সাজিয়ে তুলতে হবে। সিলেবাস বহির্ভূত বিষয় পাঠ্যবই থেকে বাদ যাবে। আর সিলেবাসে থাকা কোনও বিষয় বইয়ে না থাকলে তা যুক্ত করতে হবে।’

উল্লেখ্য, প্রশ্ন ফাঁস হওয়া আটকাতে এবার প্রত্যেকটি পরীক্ষাকেন্দ্রে তিনটি করে সিসিটিভি লাগানো বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। স্কুলে প্রবেশের মুখে ও সদ্য আসা প্রশ্নপত্রের বান্ডিল খোলার জায়গায় সিসিটিভি রাখা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। এছাড়াও, পরীক্ষা চলাকালীন টুকলি হওয়া রুখতে একাধিক ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। পরীক্ষা কেন্দ্রগুলির নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে এবং তার নিরপেক্ষতা বজায় রাখতে ‘রিয়াল টাইম অ্যাপ’ চালুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে পর্ষদ।

রাজ্যের অভাবী পড়ুয়াদের পড়াশোনা নিয়ে অভিনব উদ্যোগ। শুনলেই দারুন খুশি হবেন।

অ্যাপের মাধ্যমে ভেনু সুপারভাইজারদের প্রতিনিয়ত খবরাখবর নেবেন পর্ষদ কর্তারা। শেষ কয়েক বছরে মাধ্যমিক পরীক্ষার আয়োজন নিয়ে সমালোচনার মুখে পড়েছে পর্ষদ। নতুন সভাপতি রামানুজ গঙ্গোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে সেই সমস্ত ক্ষেত্র পর্যালোচনা করে মাধ্যমিক পরীক্ষার (Madhyamik Exam) নতুন নীলনকশা বানানো হয়েছে, যাতে এ বারের মাধ্যমিক পরীক্ষা নিয়ে কোনও অভিযোগ না ওঠে।

Leave a Comment